দিনকাব্য-২

ব্যস্ত সময় তবুও শিল্পের ঝুলি খুলে বসে যাই মেঝেতে - পাতা ঝরার শব্দ শুনি রোজ কান পেতে আর রঙের বাধন খুলে খুলে সরে আসি ধূসর জানালার পাশে ... বাতাসে কানাঘুষা শুনি শুনি কত খুনসুটি মানুষ এখনো খাচা বয়ে বেডায় আমি চলি স্বপ্নের গালিচায় পা দিয়ে ব্যস্ত সময় কাটে রোজ শিল্প ও শয্যা গোছাতে গোছাতে ২ …

Advertisements

দিনকাব্য-১

আজ কাল কবিতা লেখা হয়ে ওঠে না... কবিতারা বহু পথ হেটে আসে আমার কাছে আমার অবহেলায় আবার ফিরে যায় পাছে মনের মধ্যে ভয় দানা বাধে বাসা বাধে সংশয় তোমাকে যে ভালোবাসি তা আর বলবো না বলে দিয়েছি অভয় নিজ মনকে ... সঙ্গম শেষ তোমার ঘামের বিন্দু গড়িয়ে পড়ার আগেই যেমন তুলে নেয় আমার তৃষ্ণার্ত জিভ …

শামুক এক অনাহূত

আমার হয়ত জন্ম হয়নি আজও খুঁজে বেড়াই আর ভাবি— জীবনে স্বপ্ন থাকে নাকি স্বপ্নে জীবন? জীবনতো আর কিছু নয় আমার; দু:স্বপ্নের বপন । সদ্যজাতও টেনে নেয় মাতৃস্তন থেকে জীবনের সুধা, স্বত:স্ফূর্ততায় আমার সমস্ত অস্তিত্ব হারায় জরায়ুর সীমানায়— আমার হয়ত জন্ম হয়নি আজও ; খুঁজে বেড়াই সাদা কাফনে মোড়া নিজ মরদেহ মর্গের বারান্দায়... ঘুম থেকে জেগে …

স্বপ্নসাগরে সঙ্গম

সঙ্গমের ঘ্রান গায়ে মেখে ঘুম  থেকে জেগে দেখি সবুজ ঘাসে লেগে আছে শেষ রাতের তারার মায়া— তুমি বলেছিলে নাকি ? "তুমি আমার ঘাসপরী, আমার নক্ষত্রসাগর, সেই জলেই আমি সাঁতরে ‍মরি" – মনে নেই, মনে হয় স্বপ্নের মতো ঘোরের মতো, কুহেলির  মতো – তবুও সঙ্গমের ঘ্রান পায়, ঘাসে-নক্ষত্র-বাতাসে; তফাৎ নেই কোনো স্বপ্ন আর সত্যের মাঝে আজ— …